রবিবার, আগস্ট ১

        ছবি: সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্কঃ-

করোনাভাইরাসের আক্রমণে বিধ্বস্ত আমেরিকায় আরও একটি ভাইরাসের সংক্রমণ দেখা দিয়েছে। এই ভাইরাসের নাম ‘মাঙ্কিপক্স’। নামেই বোঝা যায়, এই ভাইরাস এসেছে বানর থেকে।

অনেকটা গুটি বসন্তের মতো ‘মাঙ্কিপক্স’ ভাইরাস। তবে এটা অনেক বেশি বিরল। অন্যান্য পক্সের তুলনায় এতে অনেক বেশি র‍্যাশ বের হয়। তীব্র জ্বর, সর্দি ও সারা শরীরে যন্ত্রণা হয়।

আমেরিকার সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) শুক্রবার (১৬ জুলাই) জানিয়েছে, সংক্রমণের ঘটনাটি ঘটেছে টেক্সাসে। টেক্সাসের এক ব্যক্তি কয়েকদিন আগে নাইজেরিয়া থেকা বিমানে চড়ে গত ৮ জুলাই আটলান্টায় পৌঁছায়। তার পর ৯ জুলাই আটলান্টা থেকে আর একটি বিমানে তিনি টেক্সাসের ডালাসে আসেন। ওই ব্যক্তিই আক্রান্ত হয়েছেন মাঙ্কিপক্সে।

সিডিসি আরও জানিয়েছে, আক্রান্ত ওই ব্যক্তির থেকে অন্য যাত্রীরাও সংক্রমিত হয়েছেন কি না জানতে দু’টি বিমানের সকলেরই খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। তাদেরও রক্তপরীক্ষা করাতে বলা হয়েছে।

এর আগে, আমেরিকায় সর্বশেষ ২০০১ সালে মাঙ্কিপক্স ভাইরাসের সংক্রমণ হয়েছিল। এই ভাইরাস নিঃশ্বাসের সাথে নাক থেকে বের হওয়া ড্রপলেটের মাধ্যমেই ছড়ায় বলে সতর্ক করেছে সিডিসি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, এই ভাইরাসের সংক্রমণ মূলত মধ্য ও পশ্চিম আফ্রিকায় দেখা যায়। বানরের শরীরে থাকলেও এই ভাইরাস অন্য প্রাণীর শরীরেও সংক্রমিত হতে পারে। ‘মাঙ্কিপক্স’ মানুষের শরীরে প্রবেশ করে বানর থেকে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে অন্য প্রাণীর মাধ্যমেও মানুষের শরীরে ঢুকতে দেখা গেছে।

১৯৭০ সালে প্রথম পশ্চিম আফ্রিকার বেশ কিছু দেশে মাঙ্কিপক্স সংক্রমণের কথা মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *